বুধবার ২৪ জানুয়ারী ২০১৮ || সময়- ৪:৪৩ pm
‘জঙ্গিবাদ রুখতে মুক্তবুদ্ধির চর্চা প্রয়োজন’

ইনফরমেশন ওয়াল্ড সংগঠন সংবাদ  নিউজ ডেক্স
চট্টগ্রাম:-----শ্রেণিহীন ও শোষণমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে তরুণদের বেশি বেশি মুক্তবুদ্ধির চর্চায় সম্পৃক্ত করা প্রয়োজন। তাদের দেশ ও সমাজ সম্পর্কে সচেতন হতে হবে। শিল্পবোধ সম্পন্ন মানবিক মানুষ হতে হবে। তরুণদের মুক্তবুদ্ধির চর্চা সাম্প্রতিক সময়ে মাথাচাড়া দিয়ে ওঠা জঙ্গিবাদ রুখতে সহায়ক হবে। ’
শুক্রবার নগরীর জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে বাচিক শিল্প চর্চা কেন্দ্র ‘তারুণ্যের উচ্ছ্বাস’ এর শুদ্ধ উচ্চারণ ও আবৃত্তি কর্মশালার দ্বাদশ সমাবর্তন ও আবৃত্তি অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রামস্থ ভারতীয় দূতাবাসের সহকারী হাই কমিশনার সোমনাথ হালদার। তারুণ্যের উচ্ছ্বাস সভাপতি কবি ভাগ্যধন বড়ুয়ার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও রূপালী ব্যাংকের পরিচালক আবু সুফিয়ান, চট্টগ্রাম পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক ডা. একিউএম সিরাজুল ইসলাম এবং চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজের পরিচলক মাহবুবুল হক চৌধুরী বাবর। সমাবর্তন বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন আবৃত্তিশিল্পী মিলি চৌধুরী।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে সোমনাথ হালদার বলেন, ‘পুরো বিশ্বজুড়ে আমরা বর্তমানে একটি অস্থির সময় অতিক্রম করছি। এসময় শুভবোধ সম্পন্ন মানুষগুলোকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। সংস্কৃতি ও সুন্দরের চর্চার মধ্য দিয়ে সকল কলুষতাকে পরাজিত করতে হবে।’
বাদিক আবু সুফিয়ান বলেন, ‘আমাদের মুক্তিযুদ্ধকে নিজেদের সৃজনশীলতা দিয়ে ত্বরান্বিত করেছিল সংস্কৃতিকর্মীরা। দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতেও সংস্কৃতিকর্মীদেরই সৃজনশীল আগামী প্রজন্ম গড়তে হবে।’
ডা. একিউএম সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘সংস্কৃতি চর্চা আমাদের হৃদয়কে বড় করে। তাই আমাদের অভিভাবকদের তাদের সন্তানদের এ চর্চার সাথে নিয়মিত যুক্ত রাখতে হবে। সুন্দরের চর্চায় তরুণ প্রজন্ম যত বেশি সম্পৃক্ত হবে দেশকে এগিয়ে নেওয়ার জন্যে এটি তত বেশি সহায়ক হবে।’
মাহবুবুল হক চৌধুরী বাবর বলেন, ‘আবৃত্তি সংগঠনগুলোর সক্রিয় পদচারণা কবিতাকে সাধারণের কাছে একটি অন্য উচ্চতায় নিয়ে যাচ্ছে। এটি একই সাথে কবিতাপ্রেমী মানুষের জন্যে আনন্দের ও উচ্ছ্বাসের।’
আবৃত্তিশিল্পী মিলি চৌধুরী বলেন, ‘শিল্প চর্চার আগে শিল্পবোধ সম্পন্ন মানবিক মানুষ হতে হবে। মনের মধ্যে অন্ধকার রেখে শিল্পের চর্চা হয় না। মনে সুন্দরের আলো জ্বেলে নিয়মিত চর্চা ও সাধনায় থাকতে হবে। তবেই আবৃত্তি বা যেকোন শিল্প চর্চায় সফলতা আসবে।’
তারুণ্যের উচ্ছ্বাস সভাপতি ভাগ্যধন বড়ুয়া বলেন, ‘মুক্তবুদ্ধি ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধারণ করে তারুণ্যের উচ্ছ্বাস একটি অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণের স্বপ্নে এগিয়ে চলেছে। ’
অনুষ্ঠানে তারুণ্যের উচ্ছ্বাস পরিচালিত শুদ্ধ উচ্চারণ ও আবৃত্তি কর্মশালার দ্বাদশ ব্যাচের উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের হাতে সনদপত্র তুলে দেন অতিথিরা
তথ্য সূত্র :-বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম