শনিবার ১৮ নভেম্বর ২০১৭ || সময়- ৬:৪৯ pm
‘সিদ্দিক আহমেদের মতো বিশ্বসাহিত্য খুব কম লেখকই জানেন’ ড.অনুপম সেন

ইনফরমেশন ওয়াল্ড সাহিত্য শিল্প ও সংস্কৃতি  নিউজ ডেক্স
চট্টগ্রাম:----সিদ্দিক আহমেদের মতো বিশ্বসাহিত্য সম্পর্কে জানেন এমন লেখক বাংলা সাহিত্যে আর আছে কি না তা নিয়ে সংশয়ের কথা জানিয়েছেন বরেণ্য শিক্ষাবিদ ও প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড.অনুপম সেন।
বিদগ্ধ সাহিত্যিক ও বর্ষীয়ান সাংবাদিক সিদ্দিক আহমেদের লেখা ‘প্রভৃতি’ গ্রন্থের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে লেখককে নিয়ে এমন ‌উচ্চ ধারণার বিষয়টি প্রকাশ করেছেন ড.অনুপম সেন।
সিদ্দিক আহমেদকে সামনে রেখে তিনি বলেন, এই বাংলাদেশে আমি জানিনা কতজন, আমার মনে হয় খুব কম লেখকই আছেন যারা সিদ্দিক আহমেদের মতো বিশ্বসাহিত্যে এমন সহজভাবে পদচারণা করেছেন। আজ থেকে প্রায় একশ বছর আগে বিনয় সরকার যাকে বলা হত বিশ্বকোষ তিনি বলেছিলেন বাংলা সাহিত্যে যদি কেউ বিশ্বসাহিত্যের খবর জানেন তিনি শশাংকমোহন সেন।  
‘বর্তমান প্রেক্ষাপটে আমি বলব এই বাংলা সাহিত্যে আজ সাংবাদিকদের মধ্যে, লেখক-কবিদের মধ্যে, এমনকি দার্শনিকদের মধ্যেও, বিশ্বসাহিত্যে আমি বলছি না দর্শন, আমি বলছি না সমাজবিজ্ঞান, কিন্তু সাহিত্যিকদের মধ্যে বিশ্বসাহিত্যের খবর যেভাবে সিদ্দিক আহমেদ জানেন, তার মতো আর কেউ সেভাবে জানেন কিনা আমি জানি না। ’
অনুপম সেন বলেন, শুধু বইকে ভালবাসা নয়, বইয়ের ভেতরের বস্তুকে তিনি যে কত গভীরভাবে ভালবেসেছেন, বিশেষত তার সাহিত্যকে, সেটা তার লেখায় বোঝা যায়।  আইনের গ্রন্থেও তিনি সাহিত্যকে টেনেছেন।
সিদ্দিক আহমেদের লেখার প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, সিদ্দিক আহমেদ কথার শক্তির বিষয় বলেছেন।  আমি বলব, পুরো জীবনটাই একটা কথা।  কিন্তু আমরা তো কথার ভেতরে ঢুকতে পারি না। 
‘একজন বৈজ্ঞানিক যে ভাষায় কথা বলবেন, আমাদের মধ্যে যদি ভাষার ঐশ্বর্য না থাকে সেটা তো আমরা বুঝতে পারব না।  তেমনি বৈজ্ঞানিকের মধ্যেও যদি ভাষার ঐশ্বর্য না থাকে তিনিও সেটা সবার কাছে প্রকাশ করতে পারবেন না।  নিগুঢ় জিনিস প্রকাশ করার ক্ষমতা ভাষা কিংবা কথার থাকতে হবে। ’
‘দার্শনিক তিনিই যিনি সত্যকে প্রকাশ করেন।  সিদ্দিক আহমেদ জীবনের সত্যকে সহজভাবে প্রকাশ করেছেন।  কবিতায়, সাহিত্যে সবখানে তিনি বলেছেন জীবনের কথা।  তিনি প্রকৃত জীবনরসিক। ’
ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে চলা জ্ঞানের কিংবদন্তী সিদ্দিক আহমেদের জন্য শুভকামনা জানিয়ে বক্তব্যের ইতি টেনেছেন ড.অনুপম সেন।
‘সিদ্দিক আহমেদ তার জীবনে, লেখায় মৃত্যুকে অন্য চোখে দেখেছেন।  কেউ একজন বলেছেন দূরারোগ্য। আমি বলব, দূরারোগ্য নয়, এখন তো এই রোগের আরোগ্য হয়।  সুতরাং এই আরোগ্য সম্ভব রোগ থেকে মুক্তি পেয়ে তিনি আরও বহু বহুদিন আমাদের মধ্যে থাকবেন, আমাদের মধ্যে আলো ছড়াবেন, আনন্দ দেবেন, তার লেখা আর কথার মধ্য দিয়ে  এবং ঋজুবাক্য আর জীবনের মধ্য দিয়ে। ’ বলেন ড.অনুপম সেন।
নগরীর সিনিয়রস ক্লাবে কবি অরুণ দাশগুপ্তের সভাপতিত্বে প্রকাশনা অনুষ্ঠানে সিদ্দিক আহমেদ নিজেও বক্তব্য রাখেন।
এছাড়া আরও বক্তব্য রাখেন কথাসাহিত্যিক হরিশংকর জলদাস, লেখিকা ফেরদৌস আরা আলীম, অধ্যক্ষ ড.আনোয়ারা আলম, অধ্যাপক মুজিবুর রাহমান, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি রিয়াজ হায়দার এবং চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মহসিন চৌধুরী।
অনুষ্ঠানে সিদ্দিক আহমেদের পছন্দের গান গেয়ে শোনান শিল্পী শাহরিয়ার খালেদ।