শুক্রবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭ || সময়- ৮:৪৬ am
বিস্ময়ের নাম জলপ্রপাত

 

ইনফরমেশন ওয়াল্ড বেড়ানো  নিউজ  ডেক্স
চট্টগ্রাম:-----প্রকৃতির যে নিদর্শনগুলো আমাদের মাঝে মুগ্ধতা ছড়ায়, জাগায় বিস্ময়, সেগুলোর মধ্যে একটি হলো জলপ্রপাত। উঁচু থেকে বহমান জলধারার সৌন্দর্য চোখ জুড়িয়ে দেয় সবার।অ্যাঞ্জেল জলপ্রপাত: পৃথিবীর সবচেয়ে উঁচু জলপ্রপাত হলো অ্যাঞ্জেল জলপ্রপাত। এটি উত্তর আমেরিকার ভেনেজুয়েলার ক্যানাইমা ন্যাশনাল পার্কে অবস্থিত। স্থানীয়দের কাছে এটি সালটো অ্যাঞ্জেল নামে  পরিচিত। এর উচ্চতা নয়শত ৭৯ মিটার। অর্থাৎ প্রায় এক কিলোমিটারের কাছাকাছি! এ জলপ্রপাতের পানি পড়ছে আউয়েনতেপুই
পাহাড় থেকে।মার্কিন বৈমানিক জিমি অ্যাঞ্জেলের নামে এ জলপ্রপাতের নাম রাখা হয়েছে। ১৯৩৩ সালে জিমি অ্যাঞ্জেল একবার এক গবেষণার কাজে বিমান নিয়ে বেরিয়েছিলেন। সহসাই তিনি এ আউয়েনতেপুই পাহাড়ের কাছে আসেন। যদিও তিনি সেখানে বেশিক্ষণ ছিলেন না কিন্তু জলপ্রপাতটি তার চোখকে ছানাবড়া করে দিয়েছিল!১৯৩৭ সালে স্ত্রীকে নিয়ে তিনি আবারও যান সেখানে। তখন বিমান অবতরণের সময় দুর্ঘটনার কবলে পড়েন এবং চাকা কাদায় আটকে যায়।  অবাক করা ব্যাপার হলো, জলপ্রপাতটি এতই উঁচুতে যে শুষ্ক মৌসুমে সেখান থেকে পানি মাটিতে পড়ার আগেই বাষ্পীভূত হয়ে যায়।বর্তমানে এটি ইউনেস্কোর ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইটের সংরক্ষিত একটি স্থান।ভিক্টোরিয়া জলপ্রপাত: আফ্রিকা মহাদেশের এক বিস্ময়ের নাম ভিক্টোরিয়া জলপ্রপাত। এটি
জিম্বাবুয়ে ও জাম্বিয়ার সীমান্তে অবস্থিত। এর উৎস জাম্বেজি নদী।  স্থানীয়দের কাছে মোজি-ওয়া-তুনিয়া নামে পরিচিত জলপ্রপাতটি। এর অর্থ হলো ‘বজ্রপাতেরধোঁয়া’। এ জলপ্রপাত থেকে ভীষণ বেগে পানি নিচে প্রবাহিত হয়। পানির পতন তীব্র শব্দ সৃষ্টি করে। পানির গর্জন প্রায় ৪০ কিলোমিটার দূর থেকেও শোনা যায়।জলপ্রপাতটির উচ্চতা তিনশত ৫৫ ফুট বা একশত নয় মিটারের কাছাকাছি।নায়াগ্রা জলপ্রপাত: যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার সীমান্তবর্তী অঞ্চলে রয়েছে নায়াগ্রা জলপ্রপাত। তিনটি ছোটো প্রপাত, কানাডিয়ান জলপ্রপাত, আমেরিকান জলপ্রপাত এবং ব্রাইডালভিলস জলপ্রপাত মিলে নায়াগ্রা জলপ্রপাত। ওয়ার্ল্ড ওয়াটার ফলসের ডাটাবেজের তথ্য অনুসারে নায়াগ্রার উচ্চতা একশত ৬৭ ফুট।   ভ্রমণের জন্য নায়াগ্রা জলপ্রপাত বেশ জনপ্রিয়। হিস্ট্রি ডট কম থেকে পাওয়া তথ্য অনুসারে এর উৎপত্তি ঘটেছে আজ থেকে প্রায় ১২ হাজার বছর আগে।ন্যাশনাল জিওগ্রাফির এক নিবন্ধে বলা হয়েছে এ জলপ্রপ্রাতে প্রতি এক মিনিটে প্রায় ৬০ লক্ষ ঘনফুট পানি নিচে পড়ে। অর্থাৎ ১৭ কোটি লিটার পানির কাছাকাছি।
নায়াগ্রা জলপ্রপাতের পানির প্রবাহ দিয়ে প্রচুর পরিমাণে বিদ্যুৎও উৎপন্ন করা যায়।টাকাক্কাও জলপ্রপাত: পৃথিবীর সুন্দর জলপ্রপাতগুলোর মধ্যে একটি হলো টাকাক্কাও জলপ্রপাত। কানাডার ইয়োহো ন্যাশনাল পার্কে এ জলপ্রপাত অবস্থিত। জলপ্রপাতটির উচ্চতা নয়শত ৯২ ফুট। এ জলপ্রপাত থেকে ইয়োহো নদীর উৎপত্তি।সবুজ গাছে ঘেরা টাকাকাও জলপ্রপাত। আর এ সবুজ অরণ্য জলপ্রপাতটির সৌন্দর্য বাড়িয়ে দেয় কয়েক গুণ। টাকাকাও জলপ্রপাত কানাডার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উঁচু জলপ্রপাত। টাকাক্কাও শব্দের অর্থ মহৎ।টাকাকাও জলপ্রপাতের পাশে আরো তিনটি জলপ্রপাত রয়েছে। এগুলো হলো লাফিং জলপ্রপাত, টুইন জলপ্রপাত ও ওয়াপটা জলপ্রপাত।