শনিবার ১৮ নভেম্বর ২০১৭ || সময়- ৩:০২ pm
বঙ্গবন্ধুর নির্দেশেই জনগণ মুক্তি সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়ে দেশ স্বাধীন করেছে : স্পিকার

ইনফরমেশন ওয়াল্ড জাতীয় নিউজ ডেক্স
 চট্টগ্রাম:----ঢাকা, ২৬ আগস্ট, ২০১৭ (বাসস) : স্পিকার ও সিপিএ চেয়ারপার্সন ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অঙ্গুলির নির্দেশেই বাংলার আপামর মানুষ মুক্তি সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়ে দেশ স্বাধীন করেছে। তিনি আজ ঢাকার ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে গোপালগঞ্জ জেলা সমিতি, ঢাকা আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনাসভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।
স্পিকার বলেন, বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক আদর্শ ছিল মানুষকে ভালবাসা। তিনি ছিলেন নির্যাতিত মানুষের আশ্রয়স্থল। বঞ্চিত, নিপিড়িত. নির্যাতিত মানুষের জন্যই ছিল তাঁর রাজনীতি। তিনি বলেন, ‘জাতির পিতা আমাদের দিয়েছেন স্বাধীন দেশ, লাল সবুজের পতাকা এবং একটি সংবিধান। বাঙ্গালীর অধিকার আদায়ে তিনি ছিলেন অবিচল। অন্যায়ের কাছে তিনি কখনও মাথা নত করেননি।’ তিনি বলেন, আগস্ট মাস বাঙ্গালী জাতির জীবনে শোকাবহ মাস। ১৫ আগস্ট ঘাতকেরা বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের নির্মমভাবে হত্যা করে ক্ষান্ত হয়নি, ইতিহাসের কালো আইন পাস করে হত্যার বিচারের পথ রোধ করা হয়েছিল। খুনিদের রাখা হয়েছিল আইনের উর্ধ্বে। বাঙ্গালী জাতিকে এই বিচারের জন্য দীর্ঘ ৩৭ বছর অপেক্ষা করতে হয়েছিল।
গোপালগঞ্জ জেলা সমিতির সভাপতি শেখ কবির হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম এমপি, উম্মে রাজিয়া কাজল এমপি ও কাজী একরাম উদ্দিন আহমেদ বক্তব্য রাখেন।
স্পিকার বলেন, বঙ্গবন্ধুর দীর্ঘ আন্দোলন সংগ্রামের ফসল বাংলাদেশের স্বাধীনতা। অসীম সাহস আর মানুষের প্রতি তাঁর ভালবাসা তাকে জাতির পিতার আসনে অধিষ্ঠিত করেছে। তিনি বলেন, জাতির পিতা ১৯৭১ সালের ৭ মার্চের ভাষণে বলে ছিলেন ‘আমি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীত্ব চাইনা আমি বাংলার মেহনতি মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে চাই’। তিনি বলেন, জাতির পিতা মেহনতি মানুষের মুক্তির জন্য আজীবন কাজ করে গেছেন।