মঙ্গলবার ২৩ জানুয়ারী ২০১৮ || সময়- ১:১৬ pm
তথ্য না দিতে আইনের ‘অপব্যাখ্যা’ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের


ইনফরমেশন ওয়াল্ড শিক্ষাঙ্গন  নিউজ ডেক্স
চট্টগ্রাম:---আবেদনের পর তথ্য না দিয়ে তথ্য অধিকার আইনের একটি ব্যাখ্যা হাজির করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ, যা ‘আইনসম্মত হয়নি’ বলে প্রধান তথ্য কমিশনার মত দিয়েছেন।
২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে ‘গ’ ইউনিট ভর্তি পরীক্ষার ওএমআর সংযুক্ত প্রশ্নপত্র এবং উত্তরপত্রের জন্য এক আবেদনের পর সেটাকে ‘জাতীয় স্বার্থে স্পর্শকাতর’ অভিহিত করে তথ্য না দেওয়ার অপারগতা দেখিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।
ভুল উত্তর দিয়ে উত্তরপত্র মূল্যায়নের অভিযোগের প্রেক্ষাপটে গত ১৫ অক্টোবর তথ্য অধিকার আইনে ‘গ’ ইউনিটের ৩ সেট ওএমআর সংযুক্ত প্রশ্নপত্র এবং প্রশ্নপত্রের সঠিক উত্তরপত্র দেওয়ার জন্য তথ্য অধিকার আইনে আবেদন করেন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের প্রতিবেদক।
 এর জবাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত তথ্য কর্মকর্তার চিঠিতে বলা হয়, “তথ্যের জন্য বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের ডিন ও সমন্বয়ক, গ ইউনিট’ এর নিকট তথ্য দেওয়ার অনুরোধ করা হয়। সংশ্লিষ্ট দপ্তর থেকে ‘জাতীয় স্বার্থে স্পর্শকাতর এই সব বিষয়ে তথ্য আদান প্রদান ভবিষ্যতে যে কোনো পরীক্ষাকে আরও ঝুঁকিপূর্ণ করে তুলতে পারে; যা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ও সরকারের মর্যাদাহানির বিষয় হবে’ বিবেচনা করে তথ্য প্রদান করা হয়নি।
“এই পরিপ্রেক্ষিতে আপনাকে তথ্য সরবরাহ করা সম্ভব হচ্ছে না বিধায় অপারগতা প্রকাশ করছি।”
একে ‘নিজেদের মতো করে আইনের ব্যাখ্যা’ বলেছেন প্রধান তথ্য কমিশনার অধ্যাপক গোলাম রহমান।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এই অধ্যাপক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “ব্যাখ্যাটা তথ্য অধিকার আইনের মতো হয়নি। তারা যে এক্সকিউজ করল, কোন আইনের বিধানবলে করল, নিজেরা ব্যাখ্যা করলে তো হবে না।
“পরীক্ষা হয়ে গেছে, প্রশ্নপত্র সবাই জানে। এটা এখন পাবলিক ইনফরমেশন। তারা যে উত্তর দিয়েছে, সেটা তথ্য না দেওয়ার বিষয়ে যেসব নিষেধাজ্ঞা আছে, তার মধ্যে পড়ে না।”
এ বিষয়ে তথ্য কমিশনে অভিযোগ করা যেতে পারে জানিয়ে প্রধান তথ্য কমিশনার বলেন, “দেখি, তারা তখন কী বলে?”
খবর বিডি নিউজের সৌজন্যে ।