বুধবার ২৪ জানুয়ারী ২০১৮ || সময়- ৪:৩৬ pm
বেলেরিনের শেষ মুহূর্তের গোলে চেলসির সাথে নাটকীয় ম্যাচে ড্র করলো আর্সেনাল


ইনফরমেশন ওয়াল্ড খেলার মাঠ নিউজ ডেক্স
চট্টগ্রাম:----লন্ডন, ৪ জানুয়ারি ২০১৮ (বাসস) : ডিফেন্ডার হেক্টর বেলেরিনের শেষ মুহূর্তের গোলে লন্ডন ডার্বিতে চেলসির সাথে ২-২ গোলে ড্র করে মাঠ ছেড়েছে আর্সেনাল।
৬৩ মিনিটে জ্যাক উইলশিয়ারের গোলে ঘরের মাঠ এমিরেটস স্টেডিয়ামে এগিয়ে গিয়েছিল আর্সেনাল। কিন্তু চার মিনিটেই এডেন হ্যাজার্ডের স্পট কিকে সমতায় ফেরে চেলসি। বেলেরিনের ফাউলেই রেফারী ৬৪ মিনিটে চেলসিকে পেনাল্টি উপহার দেন। ৮৪ মিনিটে মার্কোস আলোনসো যখন চেলসিকে এগিয়ে দেন তখন বেলেরিনের ফাউলের মাশুল গুনতে থাকে স্বাগতিকরা। কিন্তু ইনজুরি টাইমের দ্বিতীয় মিনিটে আর্সেনালকে সমতায় ফিরিয়ে ২২ বছর বয়সী বেলেরিন নিজের ভুল শোধরানোর সুযোগটা বেশ ভালই কাজে লাগিয়েছিলেন। মৌসুমে এটা বেলেরিনের দ্বিতীয় গোল।
তবে জায়ান্ট দুই দলের এই ড্রয়ে ব্যক্তিগত কোন লাভ অবশ্য কোন দলেরই হয়নি। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের থেকে এক পয়েন্ট ও শীর্ষে থাকা ম্যানচেস্টার সিটি থেকে ১৬ পয়েন্ট পিছিয়ে টেবিলের তৃতীয় স্থানেই রয়েছে চেলসি। অন্যদিকে চেলসির সাথে ১৩টি লীগ ম্যাচের মধ্যে মাত্র একটিতে জয়ী আর্সেনাল চতুর্থ স্থানে থাকা লিভারপুলের থেকে পাঁচ পয়েন্ট পিছিয়ে ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে। চ্যাম্পিয়নস লীগে সরাসরি খেলার যোগ্যতা অর্জনে এখনো লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে গানার্সরা।
ম্যাচের শুরুতে আর্সেনাল ডিফেন্ডার ক্যালুম চেম্বার্স লম্বা একটি পাস ধরতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হলে আলভারো মোরাতা গোলের সুবর্ন সুযোগ নষ্ট করেন। সামনে শুধুমাত্র গোলরক্ষক পিটার চেককে পেয়েও স্প্যানিশ স্ট্রাইকারের শট পোস্টের বাইরে দিয়ে চলে যায়। ভিক্টর মোসেসর চ্যালেঞ্জের বিপরীতে আর্সেনালের ২০ বছর বয়সী ইংলিশ মিডফিল্ডার এ্যাইন্সলে মেইটল্যান্ড-নাইলসের পেনাল্টির আবেদন নাকচ করে দেন রেফারী এন্থনী টেইলর। স্বাগতিক কোচ আর্সেন ওয়েঙ্গারের জন্য সিদ্ধান্তটি হতাশার হলেও রেফারীর সিদ্ধান্তে কার্যত কোন ভুল ছিলনা। তবে ওয়োঙ্গারের জন্য আরো হতাশা অপেক্ষা করছিল। এ্যালেক্সিস সানচেজের শক্তিশালী শট থিবাট কোরটোয়িসতে পরাস্ত করে পোস্টে লেগে অল্পের জন্য গোললাইন অতিক্রম করেনি। কোরটোয়িসের হাতে আসার আগে বলটি আরেক পোস্টে লেগে ফেরত আসে। চেলসির জন্য এটা যদি সৌভাগ্যের হয়ে থাকে তবে কোরটোয়িসের পরবর্তী প্রচেষ্টাটি আর্সেনালের জন্য আবারো দূর্ভাগ্যই বয়ে নিয়ে এসেছে। আলেক্সান্দ্রে লাকাজেত্তের লো স্ট্রাইক অসাধারন দক্ষতায় আটকে দিয়ে কোরটোয়িস আবারো স্বাগতিক দর্শকদের হতাশ করেন। বিরতির ঠিক আগে মেসুত ওজিলের শট অল্পের জন্য গোলের ঠিকানা খুঁজে পায়নি।
বিরতির পরপরই হ্যাজার্ডের লো শট ও আলোসনোর হেড আটকাতে হয়েছেন চেককে। অন্যদিকে লাকাজ্জেও শট দুর্দান্তভাবে আটকে দেন কোরটোয়িস। কিন্তু ৬৩ মিনিটে আর শেষ রক্ষা হয়নি। ওজিলের সহায়তায় 
উইলশিয়ার আর্সেনালকে এগিয়ে দেন। ২০১৫ সালের মে মাসের পরে এটা উইলশিয়ারের প্রথম লীগ গোল। যদিও এই গোলের ঠিক আগে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড পাওয়া থেকে কোনরকমে বেঁচে গেছেন ইংলিশ এই মিডফিল্ডার।
 তবে চার মিনিট পরে হ্যাজার্ডকে ফাউলের অপরাধে বেলেরিনের বিপক্ষে পেনাল্টির নির্দেশ দেন টেইলর। ৬৭ মিনিটে দলের পক্ষে মৌসুমের নবম গোল করে ব্লুজদের সমতায় ফেলান হ্যাজার্ড। রোববার ওয়েস্ট
 ব্রুমউইচ আলবিয়নের বিপক্ষে ক্যালম চেম্বার্সের বিপক্ষে হ্যান্ডবলের কারনে রেফারীর বিতর্কিত পেনাল্টির সিদ্ধান্তে আর্সেনালকে ড্র করতে হয়েছিল। গানার্স বস ওয়েঙ্গার এই সিদ্ধান্তে প্রতিবাদ করায় এফএ তার বিপক্ষে
 অভিযোগ দাখিল করে। কিন্তু গতকালকের ম্যাচে রেফারীর সিদ্ধান্তের আরেকবার বিরোধীতা ওয়েঙ্গারের জন্য কি শাস্তি নিয়ে আসে তা সময়ই বলে দিবে। ৮৪ মিনিটে ডেভিডে জাপাকোস্তার ক্রস থেকে আলোসনো ঠান্ডা
 মাথায় চেলসিকে এগিয়ে দেন। তবে ম্যাচের নাটকীয়তা তখনো বাকি ছিল। স্টপেজ টাইমে বেলেরিনের গোলে আর্সেনাল দুর্দান্ত এক ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়ে।