মঙ্গলবার ২৩ জানুয়ারী ২০১৮ || সময়- ১:১৬ pm
সেই মোশাররফ হলেন এনবিআর চেয়ারম্যান

ইনফরমেশন ওয়াল্ড অন্যরকম খবর নিউজ  ডেক্স
চট্টগ্রাম:-----পদ্মা সেতুর পাঁকে পড়ে বরখাস্ত হয়ে সচিব পদে ফিরে এসে অবসরে যাওয়া মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান (এনবিআর) পদে নিয়োগ পেয়েছেন।
শিল্প সচিব হিসেবে অবসরে যাওয়া মোশাররফকে দুই বছরের চুক্তিতে এনবিআর চেয়ারম্যান ও অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব পদে নিয়োগ দিয়ে বুধবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের আদেশ হয়।
তিনি মো. নজিবুর রহমানের স্থলাভিষিক্ত হলেন। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান ও অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব নজিবুর গত ৩১ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব হিসেবে নিয়োগ পান।
নতুন দায়িত্ব পেয়ে মোশাররফ বলেছেন, রাজস্ব বাড়াতে এনবিআরের আগের চেয়ারম্যানরা যে সব উদ্যোগ নিয়েছিলেন, তা বেগমান করতে উদ্যোগী হবেন তিনি।
নরসিংদী জেলা থেকে আসা মোশাররফ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী। তিনি ১৯৮১ সালের বিসিএস ব্যাচের কর্মকর্তা।
২০১০ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি সেতু বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব হিসেবে নিয়োগ পেয়েছিলেন মোশাররফ। ওই বছরের ২৯ জুলাই পদোন্নতি পেয়ে সচিব হয়েছিলেন তিনি।
তখনই পদ্মা সেতু প্রকল্পে দুর্নীতির ষড়যন্ত্রের অভিযোগ উঠলে দুর্নীতি দমন কমিশন মামলা করে। তাতে প্রধান আসামি করা হয়েছিল মোশাররফকে।
মামলা ও গ্রেপ্তার হওয়ার পর তাকে সাময়িক বরখাস্ত করেছিল সরকার। তবে জামিনে মুক্ত হওয়ার পর চাকরি ফিরে পান তিনি।
পরে দুর্নীতি দমন কমিশন জানায়, পদ্মা সেতু প্রকল্পে দুর্নীতির কোনো প্রমাণ তারা পাননি। ফলে ওই অভিযোগ থেকে মুক্ত হন মোশাররফসহ সাত আসামির সবাই।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পরে বিভিন্ন সময় বলেন, বিশ্ব ব্যাংক মিথ্যা অভিযোগ তুলে তাকেসহ প্রশাসনের কর্মকর্তাদের হয়রানিতে ফেলেছিল।
চাকরিতে ফেরত আসার পর মোশাররফ বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) নির্বাহী চেয়ারম্যান এবং প্রাইভেটাইজেশন কমিশনের সদস্যের দায়িত্ব পালন করেন।
২০১৪ সালের ২৬ অক্টোবর শিল্প সচিব পদে নিয়োগ পান তিনি। ২০১৬ সালের ১১ এপ্রিল পদোন্নতি দিয়ে জ্যেষ্ঠ সচিব করা হয় তাকে।
২০১৬ সালের ৩০ জুন অবসরোত্তর ছুটিতে (পিআরএল) যাওয়ার কথা ছিল মোশাররফের। এর একদিন আগে ২৯ জুন তার পিআরএল বাতিল করে এক বছরের চুক্তিতে শিল্প মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব নিয়োগ দেয় সরকার।
তারপর এথন চুক্তির ভিত্তিতে এনবিআর চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পেলেন। বৃহস্পতিবারই নতুন কর্মস্থলে যোগ দেবেন বলে জানিয়েছেন মোশাররফ।
তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “কর জাল (ট্যাক্স নেট) বাড়ানো হবে। বর্তমানে ট্যাক্স-জিডিপি অনুপাত যেটা ১১ শতাংশ আছে, সেটা সরকারের মোট রাজস্বের সঙ্গে জিডিপির অনুপাত। আমি এনবিআরের ট্যাক্স অংশ এবং জিডিপির অনুপাতই ১১ শতাংশ করার চেষ্টা করব।”
রাজস্ব আদায়ের গতি বাড়াতে ব্যবসায়ীসহ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলোচনা করবেন জানিয়ে মোশাররফ বলেন, “করবান্ধব পরিবেশ গড়ে তোলা হবে, সবাই যাতে কর দিতে উৎসাহী হয়।”
ভ্যাট থেকে আয় বাড়াতেও উদ্যোগ নেবেন বলে জানান মোশাররফ।
তথ্য সূত্র--বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম